মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২

আপনার ফোনে হয়তো সবথেকে সেরা ক্যামেরা টি রয়েছে, কিন্তু তারপরেও আপনি ভালো ছবি তুলতে পারছেন না। অন্যদিকে আপনার বন্ধুর ক্যামেরার কোয়ালিটি অতটা ভালো না হলেও অনেক সুন্দর সুন্দর ছবি তুলছে সেই ক্যামেরা দিয়ে।

কারণ কি? এর কারণ হলো আপনার বন্ধু ছবিটি তোলার পরে তাই একটু এডিটিং করে নেয়। আজকের পোস্টটি তে আমরা আলোচনা করব, মোবাইলের পাঁচটি ফটো এডিটিং অ্যাপ নিয়ে। যার মাধ্যমে আপনি প্রফেশনালি ফটো এডিটিং করতে পারবেন।

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

#ফটোরুম ( Photo Room ):-

ফটোরুম অ্যাপের মেনই কাজটি হলো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করা। আমরা অনেকে চান আমাদের ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে সেখানে অন্য কিছু এড করবো অথবা আমার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড একটু ঘোলা করব অথ্যৎ ডিএসএলআর এর মত ছবি তুলবো, তাহলে ফটোরুম অ্যাপটি শুধু এবং শুধুমাত্র আপনার জন্য।
মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

আর শুধু এতোটুকুই না এই অ্যাপ এর ভিতরে আরও কিছু ইন্টারেস্টিং ফিচার আছে। যেমনঃ

  • ইউটিউব থাম্বনাইল মেক করাঃ এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি চাইলে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য ও থাম্বনাইল মেক করতে পারবেন।
  • ছবি বা পোস্টার তৈরি করাঃ আপনি চাইলে অ্যাপের মাধ্যমে আপনার পছন্দমত ছবি বা পোস্টার তৈরি করে নিতে পারবেন। 
অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

#লাইট রুম ( LightRomm):-

আমি জানি অনেকে হয়তো এই অ্যাপ্লিকেশনটির (লাইটরুম) সাথে পূর্ব পরিচিত। এই লাইটরুম অ্যাপ্লিকেশন টি সুপার ডুপার জনপ্রিয়। আর এটি (লাইটরুম) শুধু  অ্যান্ড্রয়েডের জন্য না আইফোন এবং ল্যাপটপ/কম্পিউটারের জন্যও এটি (লাইটরুম) অনেক জনপ্রিয় অ্যাপ।

আপনি যদি আপনার ফটোতে কালার গ্রেডিং করতে চান অথবা কালার কারেকশন করতে চান,  তবে এটার (লাইটরুম) বিকল্প আর কিছু নেই বললেই চলে। আর লাইটরুম অ্যাপ্লিকেশনটি ফটোর কোয়ালিটি আগের মতোই একদম ধরে রাখতে পারে। লাইটরুম অ্যাপের মেইন কাজটি হলো ছবির কালার কারেকশন এবং ছবির কালার গ্রেডিং করা।

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

পিকসআর্ট ( PicsArt ):-

এই অ্যাপ্লিকেশনটি ( PicsArt ) খুবই খুবই জনপ্রিয়। এটি ( PicsArt ) এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন যাকে বলা যায় এন্ড্রয়েড ফোনের জন্য অভারঅল ফুল কোয়ালিটি সম্পন্ন অ্যাপ্লিকেশন। এখানে ( PicsArt ) আপনি মোটামুটি একটি ফটো এডিট করতে যা প্রয়োজন হয় সবকিছু পেয়ে যাবেন আর এটির ( PicsArt ) মাধ্যমে আপনি প্রফেশনাল কাজ করতে পারবেন।

কিন্তু এই অ্যাপে ( PicsArt ) একটাই সমস্যা আমার চোখে পড়ছে সেটি হল এখানে কিছুটা হলেও ফটোর কোয়ালিটি লো হয়ে যায়। তারপরও এটির মাধ্যমে অনেকগুলো কাজ করা যায় যেমনঃ

  • মাল্টি লেয়ার ইউজ করতে পারবেন।
  • ড্রইং করতে পারবেন।
  • ইউটিউব থামলেন বানাতে পারবেন।
  • ইউটিউব কভার ফটো পাঠাতে পারবেন।
  • বিজনেসের জন্য সকল কার্ড তৈরি করতে পারে।
  • যেকোনো পোস্টার তৈরি করতে পারবেন।
  • ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন।
  • পছন্দের মত স্টিকার ইউজ করতে পারবেন।
  • ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করতে পারবেন।
  • বিভিন্ন ইফেক্ট ইউজ করতে পারবেন।
মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

#টুলউইজ ফটো ( Toolwiz Photo ):-

এই অ্যাপ্লিকেশনটি কিছুটা পিকসার্ট অ্যাপ্লিকেশন এর মত।কিন্তু এতে পিকসার্ট অ্যাপ থেকে বেশি পরিমাণে ফিচার এড করা আছে। যার মাধ্যমে আপনি আপনার ছবিকে আরও প্রফেশনালি ফটো এডিট করতে পারবেন। কিন্তু এতে পিকচারটা তুলনায় ছবির কোয়ালিটি অনেকটা ভালো থাকে। এটির মাধ্যমে আপনি অনেকগুলো কাজ করতে পারবেন।

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps

মোবাইলের ‘সেরা ৫টি’ ছবি/ফটো এডিটিং অ্যাপ ২০২২/Tech SSD.Com/ টেক এসএসডি.কম/Mobile's-‘Top-5'-Photo-Editing-Apps


অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

#পিক্সেলল্যাব ( Pixellab ):-

ইউটিউবে থামলাইন অথবা ফেসবুকের কভার ফটো তৈরি করেন তাদের এটা সবথেকে বেশি দরকার হয়। বিশেষ করে আমিওতো তো এটি ইউজ করি। এখানে আপনি বিভিন্ন ফন্ট ইউজ করে সুন্দরভাবে লিখতে পারবেন। আরো অনেক কাজ আছে যেমনঃ

  • থ্রিডি টেক্স
  • অনেক ফন্ট ইউজ করা
  • যেকোনো ছবিকে থ্রিডি রূপে নিয়ে আসা সম্ভব
  • লোগো তৈরি করার বেস্ট অ্যাপ 
  • মাল্টি লেয়ার ইউজ করা সম্ভব।
অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

আজকের মধ্যে এতোটুকু। পোস্টটি কেমন লাগলো? আপনার মতামত নিচে কমেন্ট করে জানান।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ আমাদের অফিশিয়াল অ্যাপ ডাউনলোড  করতে ক্লিক করুন

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url